As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 321

প্রশ্ন

আসসালামুআলাইকুম, আমার দুটি কন্যা সন্তান। বড় কন্যা ও জামাই দুজনেই থুলনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে পি এইচ ডি ডিগ্রি নিয়ে বর্তমানে অষ্ট্রেলিয়া স্বামীর সাথে বসবাস করছে। তার স্বামীও অষ্ট্রেলিয়া থেকে পিএইচডি ডিগ্রি নিয়েছে। প্রসঙ্গতঃ স্বামী সনাতন ধর্মলাম্বী এবং বিয়ের সময়ও হিন্দু হিসাবে রেজিষ্ট্রি করে দুজনে বিয়ে করে। এটা আমাদের অগোচরে হয়েছে। তবে রেজিষ্ট্রি হয়েছে-এটা নিশ্চিত। ২০০৮ ইং সালে দুজনে স্কলারশীপ নিয়ে বিদেশ যাবার সময় আমাদের জানালে আমরা বিষয়টি মেনে নিই। আজ দু বছর জামাই হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে মুসলমান ধর্ম গ্রহণ করে পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায়সহ অন্যান্য মুসলিম ধর্ম নিয়ম মোতাবেক পালন করে আসছে। হাদিস বা ধর্ম সম্পর্কে কিছু জানার থাকলে আমাকে জানায়। আমি আপনার আসসুন্নাহ ট্রাষ্টের ওয়েব সাইট তাকে দিয়েছি। আমার প্রশ্ন- সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে ঠিকই কিন্তু পাসপোর্ট সংক্রান্ত ঝামেলার কারনে নাম পরিবর্তন করতে পারছেন না। তারা ওখানকার সিটিজেনশীপ পাইনি। আবার ছেলে বাবা এখন পর্যন্ত কিছুই জানে না। তাদের দুবছরের একটি ছেলে আছে। এমতবস্থায় তাদের বৈবাহিক জীবন কি সিদ্ধ? অনুগ্রহ পুর্বক সত্বর আমার করনীয় সম্পর্কে একটি নির্দেশনা দিলে এ বান্দার অশেষ উপকার হতো। বলাবাহুল্য আমি পাঁচ ওয়াক্ত সালাত জামাতের সাথে আদায় করে থাকি। সমাজ আমাকে হাই প্রোফাইলের একজন ব্যক্তি মনে করে। আমাদের পরিবার ফুরফুরা শরীফের তরীকা অনুযায়ী ধর্মআ পালন করে আসছে। আল্লাহ হাফেজ।

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম।আলহামদুলিল্লাহ। আপনার জামাতা ইসলাম গ্রহন করেছেন, ইসলামী বিধিবিধান মেনে চলছেন জানতে পেরে আমরা আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করছি। আল্লাহ আপনাদের ইসলামের পথে চলার পথকে সহজ করে দিন। তবে সনাতন ধর্মাবলম্বী কোন ছেলের সাথে কোন মুসলিম মেয়ের বিবাহ জায়েজ নেই। আল্লাহ তায়ালা বলেন, وَلاَ تُنكِحُواْ الْمُشِرِكِينَ حَتَّى يُؤْمِنُواْ وَلَعَبْدٌ مُّؤْمِنٌ خَيْرٌ مِّن مُّشْرِكٍ وَلَوْ أَعْجَبَكُمْ তোমারা (তোমাদের মেয়েদেরকে) মুশরিকদের সাথে বিবাহ দিয়ো না যতক্ষন তারা মূমিন হয় আর একজন মূমিন দাস একজন মুশরিক থেকে উত্তম যদিও সে তোমাদের কাছে অধিক পছন্দের। সূরা বাকারাহ, আয়াত ২২১। সুতরাং তাদের বিয়ে শরীয়ত অনুযায়ী সহীহ হয় নি যদিও ছেলেটি পরে মুসলমান হয়েছে। তাই তাদের জন্য আবশ্যক শরয়ী বিধান অনুযায়ী পূনরায় বিবাহ করা। তবে এই নিয়ে চিন্তিত হবেন না কেননা পূনরায় বিবাহের জন্য পূনরায় রেজিস্ট্রি করার প্রয়োজন নেই । আপনারা একান্ত পারিবারিকভাবে বিষয়টির সমাধান করতে পারেন। পরিবারের দুই জন পুরুষ কিংবা একজন পুরুষ আর দুই জন মহিলার সামনে ( যারা সাক্ষী হবেন) ইজাব কবুল করলেই ইসলামী আইন অনুযায়ী বিবাহ হয়ে যাবে। এভাবে তাদের দুজনের বিবাহের ব্যবস্থা করুন। আল্লাহ আমাদের সকলের বিগত দিনের গুনা ক্ষমা করুন।