As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 320

প্রশ্ন

কেমন আছেন? আলহামদুলিল্লাহ। আমি আমার এক আপুর মাধ্যমে আপনার সম্পর্কে জানার পর আপনার ওয়েবসাইট এবং পেইজ ফলো করে অনেক কিছু জানতে পারছি। এখন আপনার কাছে আমার একটা প্রশ্ন আছে। প্রশ্ন টা করার আগে আপনাকে বিস্তারিত বলার প্রয়োজন মনে করতেছি। আমি যে আপুটার কাছ থেকে আপনার সম্পর্কে শুনেছিলাম ওনি আমার আপন বোন না, তবে আমি ওনাকে আমার আপন বড় বোনের মত ভালবাসি। আমার কোন আপন বড় বোন নাই তাই আপুর অভাব টা অনেক বেশি ফিল করতাম। ওনার সাথে আমার পরিচয় ইন্টারনেটে। প্রায় ৮ বছর ধরে আপুর সাথে আমার পরিচয়। আমাদের ভাই বোনের সম্পর্ক টা অনেক ভাল। আপু আমাকে তার আপন ছোট ভাইয়ের মত ভালবাসে। আপু থাকে যশোরে আর আমি চট্রগ্রাম এ থাকি। গতবার আপু হজ্ব করে আসার পর একটু টেনশনে আছে। আপু এখন পর পুরুষদের সাথে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছে প্রায়। আমার সাথে কথা বলে কম। আপুর ভয় হয় আমাদের ভাই বোনের সম্পর্ক যদি আল্লাহর পছন্দ না হয় তাহলে আপুর গুনাহ হবে। এখন কথা হচ্ছে আমার আর আপুর ভাই বোনের সম্পর্ক এর জন্য কি গুনাহ হবে? সত্যি বলতে আমি আপুকে আমার আপন বড় বোনের মত ভালবাসি। আমি এখন কি করব জানাবেন প্লিজ। উল্লেখ্য আমি আগে শুক্রবার ছাড়া নামায তেমন একটা পড়তাম না। আপুর কারনে আল্লাহর রহমতে আমি ৫ওয়াক্ত নামায পড়ি। আমার আর আপুর ভাই বোনের সম্পর্কের জন্য কি গুনাহ হবে? আমাকে ফেইসবুক অথবা ইমেল করে জানালে খুশি হব

উত্তর

আলহামদুলিল্লাহ। আপু ডাকার কারনে উক্ত মহিলা আপনার জন্য মাহরাম হয়ে যান নি। একজন গায়রে মাহরাম মহিলার সাথে যে সব বিধি-বিধান মেনে চলতে হয় উক্ত মহিলার ক্ষেত্রে সে সব বিধি-বিধান প্রযোজ্য হবে। আর কোন গায়রে মাহরাম মহিলার সাথে বিনা প্রয়োজনে কথা বলা জায়েজ নেই। কথা বলার প্রয়োজন হলে পর্দার মধ্য থেকে কথা বলতে হবে। আপনি নামায পড়ন, ইসলাম পুরোপুরি মেনে চলার চেষ্টা করুন। আল্লাহ আপনাকে তাওফীক দিন।