As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 213

প্রশ্ন

১। আমার সালাম দেয়ার অভ্যাস আছে, এখন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছি এমন সময় একজন মানুষ আসতেছে আর অন্যপাশ দিয়ে আমার এক সমবয়সী যাচ্ছে। আমি লোকটাকে সালাম দিলাম। পরে আমার মনে উদয় হইলো ওই পোলা টা এখন কত ভাল কইবো আমারে,পরক্ষনেই আবার মাথায় আসলো হায় হায় এইটা আমি কি ভাবলাম। ২। আমি যখন নামাজ পড়ি একটু আস্তে ধিরেই পড়ি, যখন মনে হয় যে মসজিদে কেউ আমার নামাজ দেখে তখন আমার মনে হয় যে আরেকটু সুন্দর করি, সাথে সাথেই আবার মনে মনে বলি এইটা আমি কি ভাবলাম। তখন নামাজ একটু দ্রুত পড়ার চেষ্টা করি যেন লোক দেখানো টা প্রাধান্য না পায় অথবা স্বাভাবিক ভাবেই পড়তে থাকি। আবার পাশে কোন ছোট ভাইকে নিয়ে নামাজ পড়লে ভাবি আমার নামাজ তা একটু সুন্দর করি তাইলে ও আমার টা দেইখা শিখবে। সাথে সাথেই ভাবি এইটা মনে হয় ঠিক হবেনা। ৩। বাসায় কোরান পড়ার সময় যদি কেউ বাসায় আসে তখন ভাবি যে আরেকটু সুন্দর করে পড়ি পরে ভাবি না তাইলেত লোক দেখানো হয়ে যাবে। ৪। ওযু করার সময় তো রাসুলুল্লাহ (স) হাত পা মুখ কচলাইয়া ধুইতো তাই আমিও চেষ্টা করি কচলানোর। কিন্তু আমার পাশে কেউ থাকলে মনে হয় যে একটু বেশিক্ষণ কচলাই। পরে ভাবি ধুর এইসব চিন্তা আসে কেন খালি। এইরকম আরো অনেক উদাহরণ আছে।

উত্তর

এগুলো শয়তানের কুমন্ত্রনা। এতে আপনার কোন ক্ষতি হবে না। সব আমলই আপনি সুন্দর করে করার চেষ্টা করুন।আপনাকে আল্লাহ তায়ালা সঠিক পথে অবিচল রাখুন। মানুষকে দেখানোর জন্য আমল করা বা সুন্দর করা যেমন অবৈধ, রিয়া হয়ে যাবে ভয়ে কোনো আমল বাদ দেওয়াও অবৈধ। বিশেষত যে কাজ প্রকাশ্যে করাই সুন্নাত সে কাজ প্রকাশ্যেই করবেন। যেমন সালাম প্রদান। রিয়ার ভয় শয়তানের ওয়াস ওয়াসা।