As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5753

প্রশ্ন

ফরজ নামাজের আগে ও পরে কোন কোন নামাজে কত রাকাত সুন্নত নামাজ অবশ্যই পালন করতে হবে? এবং জুম্মার নামাজের আগে ও পরে কত রাকাত অবশ্যই পালন করতে হবে?

উত্তর

সুন্নাত হলো ফরজের পরিপূরক। ৫ ওয়াক্ত নামাযের আগে মোট ১২ রাকআত সুন্নাত আদায় করলে জান্নাতে আল্লাহ বাড়ি তৈরী করে দিবেন বলে সহীহ হাদীসে উল্লেখ আছে। এই বারো রাকআত সুন্নাতে মুয়াক্কাদাহ। عن أم حبيبة رضي الله عنها قالت : قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : مَنْ صَلَّى فِي يَوْمٍ وَلَيْلَةٍ ، ثِنْتَيْ عَشْرَةَ رَكْعَةً ، بُنِيَ لَهُ بَيْتٌ فِي الْجَنَّةِ ، أَرْبَعًا قَبْلَ الظُّهْرِ وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَهَا ، وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَ الْمَغْرِبِ ، وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَ الْعِشَاءِ ، وَرَكْعَتَيْنِ قَبْلَ صَلَاةِ الْفَجْرِ ، উম্মে হাবীবা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সা. বলেছেন, যে ব্যক্তি দিনে রাতে ১২ রাকআত সালাত আদায় করবে, তার জন্য জান্নাতে একটি ঘর নির্মান করা হবে। যোহরের পূর্বে ৪ রাকআত, পরে ২ রাকআত, মাগরিবের পর দুই রাকআত, এশার পর দুই রাকআত, এবং ফজরের পূর্বে দুই রাকআত। সুনানু তিরমিযি, হাদীস নং ৪১৫। হাদীসটি সহীহ। সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৭২৮। সহীহ মুসলিমে “যে ব্যক্তি দিনে রাতে ১২ রাকআত সালাত আদায় করবে, তার জন্য জান্নাতে একটি ঘর নির্মান করা হবে” এতোটুকু উল্লেখ আছে। রাসূলুল্লাহ সা. জুমুআর ফরজ সালাতের পূর্বে সুন্নাত সালাত আদায়ের জন্য বলেছেন। সহীহ বুখারীর এই হাদীসটি লক্ষ করুন: عَنْ سَلْمَانَ الْفَارِسِيِّ قَالَ : قَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم : مَنِ اغْتَسَلَ يَوْمَ الْجُمُعَةِ وَتَطَهَّرَ بِمَا اسْتَطَاعَ مِنْ طُهْرٍ ثُمَّ ادَّهَنَ ، أَوْ مَسَّ مِنْ طِيبٍ ثمَّ رَاحَ فَلَمْ يُفَرِّقْ بَيْنَ اثْنَيْنِ فَصَلَّى مَا كُتِبَ لَهُ ثُمَّ إِذَا خَرَجَ الإِمَامُ أَنْصَتَ غُفِرَ لَهُ مَا بَيْنَهُ وَبَيْنَ الْجُمُعَةِ الأُخْرَى সালমান ফারসী রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলূল্লাহ সা. বলেছেন, যে ব্যক্তি জুমুআর দিন ভালভাবে গোসল করে তেল বা সুগন্ধি ব্যবহার করে (মসজিদে) গমন করবে অতঃপর (মসজিদে) কাউকে না ডিঙিয়ে সাধ্যানুযায়ী নামায পড়বে এবং যখন ইমাম খুতবা দেয়ার জন্য বের হবে তখন চুপ করে তা শুনবে, তার এক জুমুআ থেকে অপর জুমুআর মাঝের সব গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে। সহীহ বুখারী, হাদীস নং ৯১০। এই হাদীসে জুমুআর পূর্বের সালাতেররাকআত সংখ্যা নির্দিষ্ট করা হয় নি। আলেমগণ বলেছেন দুই রাকআত থেকে শুরু করে যত ইচ্ছা পড়বে, যত বেশী পড়বে সওয়াব ততো বেশী হবে। রাকআত সংখ্যার ব্যাপারে বিভিন্ন সাহবী থেকে বিভিন্ন সংখ্যা বর্ণিত আছে। দুই রকআত. চার রাকআত ইত্যাদি। জুমুআর পরে দুই রাকআত থেকে শুরু যতটুকু সম্ভব পড়বেন। হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে উমার রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেছেন, صَلَّيْتُ مَعَ رَسُولِ اللهِ صلى الله عليه وسلم رَكْعَتَيْنِ قَبْلَ الظُّهْرِ وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَ الظُّهْرِ وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَ الْجُمُعَةِ وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَ الْمَغْرِبِ وَرَكْعَتَيْنِ بَعْدَ الْعِشَاءِ. আমি রাসূলুল্লাহ সা. এর সাথে সালাত আদায় করতাম যুহরের পূর্বে ২ রাকআত, যুহরের পরে ২ রাকআত, জুমুআর পরে ২ রাকআত এবং মাগরিব ও এশার পর ২ রাকআত। সহীহ বুখারী, হাদীস নং১১৬৯