As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5737

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ। আমার একটি জরুরি প্রশ্ন ছিলো। আমি ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য কম্পিউটার কিনতে চাই। কিন্তু আমার বাবা মা আমাকে ব্যাংকের সুদের ঋণের টাকায় কম্পিউটার কিনে দিবে! এই মুহূর্তে আমার কাছে অন্য উপায়ও নেই। আমি ছাত্র, লেখাপড়া করি। আমার নিজস্ব কোনো ইনকাম সোর্স নেই। এখন তারা বলছে, টাকা কোথা থেকে দিবে সেটা তাদের বিষয়। এটা আমার দেখতে হবেনা। হারাম এর বিষয়ে দায়ভার তারা গ্রহণ করবে! এখন আমি কি করতে পারি? এমনিতেই তো বাবা মার দায়িত্ত্ব ছেলের ভরণ পোষণের বিষয়ে। তার উপর আবার দায়ভার তারা গ্রহণ করবে! এখন আমার প্রশ্ন হলো, এই টাকায় কম্পিউটার আমার জন্য কি হালাল হবে?

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। না,, এই টাকায় কম্পিউটার কেনা আপনার জন্য হালাল হবে না। আপনি একজন প্রাপ্তবয়স্ক ছেলে, আপনার ভরনপোষনের দায়িত্ব আপনার নিজের, আপনার বাবা-মার নয়। অপ্রাপ্ত বয়স্ক তথা শরীয়তের পরিভাষায় যারা না বালেগ এমন ছেলের ভরনপোষনের দায়িত্ব তার বাবা-মার। দ্বিতীয়ত, কম্পিউটার নিত্যপ্রয়োজনীয় কোন জিনিস নয়, যা ভরনপোষনের মধ্যে পড়ে। আপনি যে লেখাপড়া করছেন সেটা ফরজ-ওয়াজিব কোন পড়লেখা নয় আর ফ্রিল্যান্সিং ছাড়াও উপার্জনের হাজারো রাস্তা আছে, হাজারো কাজ আছে, কিন্তু সুদ দেয়া নেয়া হারাম, সুদ থেকে বেঁচে থাকা ফরজ সুতরাং কোনভাবেই সুদের টাকা দিয়ে কম্পিউটার কেনা যাবে না। আর কারো পাপের ভার অন্য কেউ বহন করতে পারবে না, সুতরাং তারা দায়ভার বহন করবে, এমন কথা মূর্খতা। সবাই নিজ নিজ পাপের বোঝা বহন করবে, ইচ্ছা করলেও অন্যের পাপ বহনের কোন সুযোগ নেই। শেষ কথা হলো আপনি কেন নিজে পাপী হবেন এবং পিতা-মাতাকে পাপী করবেন? এই কাজ ছাড়াও তো পৃথিবীর কোটি কোটি মানুষ অন্য হালাল পেশা গ্রহন করে নিজের জীবন চালিয়ে নিচ্ছেন। নিজের ইমানকে শক্ত করুন, হালাল কর্মের সন্ধান করুন।