As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5553

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম ওরাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু! আমার বন্ধু আমাকে মেসেজের মাধ্যমে একটা প্রশ্ন করে এবং আমি তার কোন জবাব দিতে না পারায় আপনাদের কাছে তার মেসেজটি হুভুহ তুলে ধরলাম। আশাকরি আপনারা কোন একটা সমাধান দিবেন। ফেসবুকে একটা মেয়ের সাথে আমার পরিচিত ছিলো, আমরা ধর্মীয় টুকটাক আলোচনা করতাম, এর বাহিরে আলোচনা করতাম না! এভাবে দুজনেই দুজনকে পছন্দ করে বসি। অতঃপর প্রেমের প্রস্তাব না দিয়ে সরাসরি বিয়ের প্রস্তাব দিলে মেয়েটি রাজি হয়। মেয়েটি তখন তার সম্পর্কে বিস্তারিত জানায়, তার আগে বিয়ে হইছিল এবং সে তালাক প্রাপ্ত। এমনকী তার ৩টার বেশি ইদ্দত সম্পূর্ণ হয়েছে। তার বাবা মৃত, তার ভাই তার এবং তার মায়ের দেখাশুনা করে না, মাঝে মাঝে কল দিয়ে তার মায়ের সাথে কথা বলে এতটুকুই। মেয়ের চাচারা কেউ জীবিত নেই। মেয়েটি টিউশনি করে দৈনন্দিনের খরচ জোগায়! এমতাবস্তায় আমি তাকে বিয়ের জন্য রাজি হই। কিন্তু আমার ফ্যামিলি তার সম্পর্কে জানার আগেই তার বাড়ি দূরে হওয়ায় না করে দেয়। অতঃপর আমি ফ্যামিলিকে না জানিয়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিই! তখন দুশ্চিন্তায় পরি মেয়ের ওলি কে হবে তা নিয়ে। অতঃপর মেয়ের মামা ওলি হয় এবং বিবাহের দিন আসে। আমাদের বিবাহের ২মাস পর জানতে পারলাম মেয়ে ও তার ভাইয়ের সাথে তার কোন ঝগড়া হয় নাই, ভাই নিজ থেকেই যোগাযোগ করে না, মেয়েও সেজন্য যোগাযোগ করে না, কিন্তু তার ভাই বিয়ের বিষয়ে তার আম্মার কাছ থেকে জানতো! এমতাবস্তায় আমাদের বিবাহটা সহিহ হবে কিনা? কিংবা এই বিষয়ে আপনাদের মতামত কি? উল্লেখ্য যে, মেয়ে এবং ছেলে উভয়ই নামাজী ।

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। বিবাহ সহীহ হয়েছে।