As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5338

প্রশ্ন

Assalamualaikum Wa Rahmatullahi Wa Barakatuhu প্রিয় শেইখ মহান আল্লাহ ইচ্ছাই আশাকরি আপনি সহ আপনার পরিবারকে আল্লাহ সুস্থ রেখেছেন। আমরাও আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি। আমার প্রশ্ন টা হলো কোনো স্ত্রী কী ইসলামিক আইন মেনে যেমন ( পর্দা, নারী মহল, সফর মাহরাম ছাড়া ইত্যাদি ইত্যাদি) চাকরি করতে পারবে যদি তার স্বামী না চায় তা সত্ত্বেও । স্বামী চাই তার স্ত্রী বাড়িতে থেকে ভালো করে বাচ্ছা মানুষ করবে। বরণ করাতে যদি পারিবারিক অশান্তি হয়। যদিও তাদের ইকোনোমিক অবস্থা আল্লাহর ইচ্ছায় মোটামুটি। এই পরিস্থিতিতে কি ডিসিশন নেওয়া যাবে?

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। আল্লাহ তায়ালা কুরআনে মুসলিম মহিলাদেরকেবলেছেন,وَقَرْنَ فِي بُيُوتِكُنَّ وَلَا تَبَرَّجْنَ تَبَرُّجَ الْجَاهِلِيَّةِ الْأُولَى তোমরা তোমাদের বাড়ি ঘরের মধ্যে থাকো, প্রাচীন জাহেলী যুগের মহিলাদের মত নিজেদের প্রাদর্শন করো না। সূরা আহযাব, আয়াত নং ৩৩। অন্য আয়াতে আল্লাহ বলেছেন, الرِّجَالُ قَوَّامُونَ عَلَى النِّسَاءِ بِمَا فَضَّلَ اللَّهُ بَعْضَهُمْ عَلَى بَعْضٍ وَبِمَا أَنْفَقُوا مِنْ أَمْوَالِهِمْ পুরুষরা মহিলাদের উপর কর্তৃত্ব করবে, কারণ আল্লাহ একজনকে অন্যজনের উপর শ্রেষ্ঠত্ব দান করেছেনএবং পুরুষেরা তাদের টাকা পয়সা খরচ করে। বিদায় হজ্জের ভাষনে রাসূলুল্লাহ সা. বলেছেন, وَاسْتَحْلَلْتُمْ فُرُوجَهُنَّ بِكَلِمَةِ اللَّهِ وَلَكُمْ عَلَيْهِنَّ أَنْ لاَ يُوطِئْنَ فُرُشَكُمْ أَحَدًا تَكْرَهُونَهُ. فَإِنْ فَعَلْنَ ذَلِكَ فَاضْرِبُوهُنَّ ضَرْبًا غَيْرَ مُبَرِّحٍ وَلَهُنَّ عَلَيْكُمْ رِزْقُهُنَّ وَكِسْوَتُهُنَّ بِالْمَعْرُوفِ তোমরা তাদের লজ্জাস্থানকে হালাল করেছো আল্লাহর কালিমা দ্বারা… তাদের খাবার-দাবার ও পোশাকের দায়িত্ব তোমাদের ওপর। সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ৩০০৯;সুনানু আবু দাউদ, হাদীস নং ১৯০৭। আলেমদের এ ব্যাপারে ঐক্যমত পোষন করেছেন যে, স্ত্রীর ভরন-পোষনের দায়িত্ব স্বামীর। আলমাউসুয়াতুল ফিকহিয়্যাতুল কুয়েতিয়্যাহ, ৪১/৩৫। উপরের আয়াত ও হাদীস থেকে জানা যায়, মহিলাদের দায়িত্ব হলো ঘর সামলানো আর পুরুষের দায়িত্ব হলো পরিবারের আর্থিক দিকটি সামলানো। এর বাইরে গেলে পৃথীবির স্বাভাবিক ভারসম্য নষ্ট হয়। আমরা দেখছি ইউরোপ-আমেরিকাতে মহিলারা বাইরে কাজ করে এমন পর্যায় গিয়েছে যে, অনেকেই পরিবার গঠন করতে, সন্তান নিতে রাজী নয়। ফলসরূপ জনসংখ্যা কমে যাচ্ছে। স্বাভাবিক ভারসম্য নষ্ট হচ্ছে আর সেখানে পুরুষরা মহিলাদের কোন দায়িত্ব নিতেও রাজী নয়। আমাদের দেশের অনেক মহিলা বিদেশে গিয়ে রান্নাবান্না ও ঘর গোছানের কাজ করে। যখন তারা বিদেশে গিয়ে এটা করে তখন সবাই সেটাকে বিশেষ কাজ মনে করে আর ঐ একই কাজ যখন নিজের বাড়িতে করে তখন সেটাকে তারা কাজ মনে করে না। এটার কারণ আমাদের মাথা পঁচে গিয়েছে। সুস্থ চিন্তা করার ক্ষমতা হারিয়ে যাচ্ছে। উপার্জনের নামে মহিলাদের বাইরে বের হওয়ার অবাধ সুযোগ দিয়ে জাতিকে দিন দিন ধ্বংসের দিকেই নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে মনে হয়। তবে কোন মহিলার যদি বাইরে গিয়ে কাজ করা ছাড়া জীবন পরিচালনার কোন উপায় না থাকে তাহলে পূর্ণ পর্দার সাথে বাইরে কাজ করতে পারবে। মহিলাদের সাথে কাজ করতে হয় এমন জায়াগায় কাজ করতেচেষ্ট করবে। স্বামী যদি নিষেধ করে বা স্বামীর অনুমতি ব্যতিত স্ত্রীর চাকুরী করা কোন ভাবেই বৈধ হবে না। এমন কি মহিলারা স্বামীর অনুমতি ছাড়া মসজিদে নামায পড়তেও যেতে পারবে না। বিস্তারিত জানতে দেখুন https://islamqa.info/ar/answers/127880/%D8%AA%D8%B1%D9%81%D8%B6-%D8%A7%D9%84%D8%B2%D9%88%D8%A7%D8%AC-%D8%A8%D8%A7%D9%8A-%D8%A7%D8%AD%D8%AF-%D9%8A%D9%85%D9%86%D8%B9%D9%87%D8%A7-%D9%85%D9%86-%D8%A7%D9%84%D8%B9%D9%85%D9%84-%D8%A7%D9%84%D8%B0%D9%8A-%D8%AA%D9%86%D9%81%D8%B9-%D8%A8%D9%87-%D8%A7%D8%AE%D9%88%D8%A7%D8%AA%D9%87%D8%A7-%D8%A7%D9%84%D9%85%D8%B3%D9%84%D9%85%D8%A7%D8%AA