As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 390

প্রশ্ন

আমি মো: মতিউর রহমান । পাক্শ, ঈশ্বরদী, পাবনা মোবা:-০১৭৪৯-৬৭৮১২১ ক) প্রশ্ন :-ঈমাম শাফিই (র:) এর মাযহাবের কোন ঈমামের পিছনে, হানাফি মাযহাবের কোন ব্যাক্তির নামায আদাই হবে কিনা? খ) ৪ মাযহাব বলতে কি বুঝানো হয়েছে? গ) মাযহাবের কারনে আমলের কোন ভিন্নতা আছে কিনা, থাকলে কি কি?

উত্তর

ইসলামের প্রথমযুগ থেকেই অর্থাৎ সাহাবীদের আমল থেকেই ফিকহী বিভিন্ন বিষয়ে আলেমগণের মাঝে মতভেদ বিদ্যমান। এই মতভেদের কারণ কুরআন ও হাদীসের ব্যাখ্যার ভিন্নতা কিংবা একই বিষয়ে কয়েক ধরনের সহীহ হাদীস থাকা। আর ফিকহী এই মতভেদের ্নামই মাজহাব। প্রথমদিকে অনেকগুলো মাজহাব বিদ্যমান ছিল। এরপর কালের পরিক্রমায় প্রসিদ্ধ চারটি মাজহাব ছাড়া বাকীগুলো প্রায় হারিয়ে গেছে। প্রসিদ্ধ চারটি মাজহাব হলো হানাফী, শাফেয়ী, মালেকী, হাম্বলী। এক মাজহাবের ইমামের পিছনে অন্য যে কোন মাজহাবের অনুসারীর নাময সহীহ হবে। মাজহাবের কারণে অর্থাৎ কুরআন ও হাদীসের ব্যাখ্যঅর ভিন্নতার কারণে এবং অনেক ক্ষেত্রে একই বিষয়ে কয়েক ধরনের হাদীস থাকার কারণে আমলের মাঝেও ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। আর এর কোন নির্দিষ্ট সংখা নেই। মনে রাখবেন, আমাদের মূল উদ্দেশ্য কুরআন ও সুন্নাহ মানা। মাজহাব কুরআন সুন্নাহ মানার একটি মাধ্যম। আর সাধারণ মানুষের পক্ষে কোন একটি মাজহাব (তা এই চার মাজহাব হোক কিংবা অন্য কোন একজন আলেমের মত হোক) মানতেই হয়, কেননা তার পক্ষে কুরআন হাদীস থেকে সরাসরি জানা সম্ভব নয়।