As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 293

প্রশ্ন

শায়েখ, আমরা পরকালে জান্নাতে বা জাহান্নামে আমরা কত সময় থাকব? এর কি কোন শেষ আছে আমরা জান্নাতে বা জাহান্নামে সারা জীবন বেচে থাকবো এটা বললে কি আল্লাহ তায়ালার সাথে তুলনা হয়ে যায় বা পরকালের জীবনে আমাদের কোন শেষ হবে না আল্লাহ তায়ালার ও কোন শেষ নেই তাহলে এটা কি তার অসিম সত্তার সাথে তুলনা করা হয়? আসলে পরকালে আমাদের জীবনের কি কোন শেষ আছে? আমি এই ভিডিও https://www.youtube.com/watch?v=HS8CD4VKWoY পেয়েছি যেখানে এক প্রস্নের জবাবে ডঃ জাকির নায়েক বলছেন যে আমরা জান্নাতে forever থাকবো আর আল্লাহর সত্তা etternal বা never end দুইটা একনা। এখন আল্লাহ তায়ালার সাথে যে আমাদের তুলনা হবে না সেটা বুঝেছি কিন্তু তার উত্তর এ তিনি বলছেন যে আমরা যেমন বলি forever আমি বাংলাদেশে থাকবো মানে যত দিন বাচব ততদিন ঠিক তেমনি পরকালে forever বলতেও সেটা আল্লাহ তায়ালা যত দিন চাইবেন তত দিন যদিও সেটা এই দুনিয়ার চেয়ে অনেক অনেক গুন বেশি হবে কিন্তু সেটা আল্লাহ তায়ালার মত শেষ বিহিন না বা মানে নিদিষ্ট আছে যেটা আল্লাহ জানেন । কিন্তু আমি এই হাদিস এ পরেছি যে আবু ইসহাক জানিয়েছেন যে, আগার তাকে আবু সাঈদ খুদরী ও আবু হুরায়রার (রাঃ) সুত্রে হাদীস শুনিয়েছেন, তারা উভয়ে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণনা করেছেন। পরকালে একজন ঘোষণাকারী বেহেস্তবাসীদেরকে লক্ষ্য করে ঘোষণা করবেন, তোমাদের জন্য সুসংবাদ এই যে, তোমরা সুস্ততা লাভ করবে এরপর আর কখনো অসুস্ত ও রোগগ্রস্ত হবে না। এবং তোমাদের জন্য সুসংবাদ, তোমরা জীবন লাভ করবে আর কখনো মৃত্যু বরণ করবে না। এবং তোমাদের জন্য সুসংবাদ, তোমরা যৌবন লাভ করবে এরপর আর কখনো বৃদ্ধ হবে না। তোমাদের জন্য সুসংবাদ, তোমরা সুখী হবে এরপর আর কক্ষনও কোন কস্ত-ক্লেশের সম্মুখীন হবে না। (সহিহ মুসলীম ৮ম – ৬৯৫১)। আসলে বিষয় টা কী এই হাদীস অনুযায়ী যদি মৃত্যু না হয় তাহলে পরকালে জীবন কাল নিদিষ্ট হবে কিভাবে? কুরআন হাদিসের আলোকে উত্তর দিলে খুব উপকৃত হব। এ বিষয় টা নিয়ে সন্দেহে ভুখতেছি। আর বলা হয় ছেলেরা জান্নাতে গেলে হুর পাবে সঙ্গী হিসাবে । তাহলে মেয়েরা কি পাবে? দুনিয়াতে যারা স্বামী স্ত্রী তারা উভয় যদি জান্নাতে যায় তাহলে তাদের জান্নাতে সম্পর্ক কি হবে? আর এক জন পুরুষ ৭০ বা ৭২ টা হুর পাবে সঙ্গী হিসাবে এটা কত তুকু হাদীস সম্মত? কুরআন হাদিসের আলোকে এ বিষয় ও উত্তর দিলে খুব উপকৃত হব। হুসাইন আহমেদ, খুলনা।

উত্তর

আল্লাহ তায়ালা অনাদী ও অনন্ত। সুতরাং মানুষ জান্নাতে অনন্ত কাল থাকলেও আল্লাহর সমকক্ষ নয়। জান্নাতে নারী পুরুষ উভয়ের জন্য সঙ্গী থাকবে । পুরষদের জন্য প্রয়োজনীও সঙ্গী বা সেবক পুরুষরা পাবেন তেমনি মহিলাদের জন্যও আল্লাহ তায়ালা প্রয়েজনীও সঙ্গী ও সেবকের ব্যবস্থা করবেন। কারো অসন্তুষ্টির কোন বিষয় সেখানে থাকবে না। সুতরাং পুরুষরা হুর পাবে নারীরা কী পাবে এই ধরনের প্রশ্ন মাথায় নিয়ে আসার কোন প্রয়োজন নেই। একটি হাদীসে জান্নাতীদের জন্য ৭২ জন স্ত্রী থাকার কথা উল্লেখ আছে।তবে হাদীসটি যয়ীফ। হাফেজ ইবনে হাজার রহ., শায়খ শুয়াইব আরনাউত, শায়খ আলবানী রহ. হাদীসটিকে যয়ীফ বলেছেন। দেখুন সুনানু তিরমিযী, হাদীস নং ২৫৬২। তবে অন্য হাদীসে শহীদদের ৭২ জন স্ত্রী থাকার কথা আছে। হাদীসটিকে ইমাম তিরমিযী এবং শায়খ আলবানী সহীহ বলেছেন। সুনানু তিরমিযী, হাদীস নং ১৬৬৩।