As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 761

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম, আমার ৩ টা প্রশ্ন আছে — ১- আমার বাবা প্রায় সময় মিথ্যা কথা বলে, এখন এক কথা, একটু পরে আরেক কথা—এজন্য কী করতে পারি? ২) ছো্টশিশিুর প্রতি যেন কারো নজর না লাগে এজন্য কি কোন দুআ আছে? ৩) আমার স্ত্রীর কোমরে লোহার টুক্রা বাধা, কারন কোমরে লোহা রাখলে নাকি জ্বীন পরি আসে না, এটা কি ইসলামিক ভাবে জায়েজ?

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। ১। আপনার পক্ষে যদি সম্ভব হয় তাকে মিথ্য বলার কুফল বুঝাবেন। নাহলে অন্য কাউকে দিয়ে বুঝাবেন। তবে কোন অবস্থাতেই তার সাথে খারাপ আচরণ করবেন না। আল্লাহর কাছে দুআ করতে থাকুন, কান্নাকাটি করতে থাকুন। আল্লাহ চাই তো তিনি এই বদঅভ্যাস ছেড়ে দিবেন। ২। শিশুদেরকে নিচের এই দুআ পড়ে ঝাড়-ফুঁক করবেন, হাদীস শরীফে আছে রাসূলুল্লাহ সা. হাসান-হুসাইনকে এই দুআ পড়ে ঝাড়-ফুক করেছেন। أُعيذُك بكلماتِ الله التامّة، من كلِّ شَيطان وهامَّةِ، ومِنْ كُلِّ عَينٍ لامَّةٍ، উচ্চারণ: উই-যুকা বি কালিমা-তিল্লা-হিত তা-ম্মাতি মিন কুল্লি শায়ত্ব-নিন ও হা্-ম্মাতিন ও মিন কুল্লি আইনিন লা-ম্মাতিন। অর্থ : আমি তোমার বিষয়ে আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাচ্ছি সকল শয়তান থেকে, বিষাক্ত প্রাণী থেকে এবং বদ-নজর থেকে। সহীহ বুখারী, হাদীস নং ৩১৯১; সুনানু আবু দাউদ, হাদীস নং ৪৭৩৭। ৩। এইভাবে লোহা বেঁধে রাখা যাবে না, হারম, শিরক। হাদীসে শরীফে এইসব লোহা ইত্যাদি বাঁধাকে শিরক বলা হয়েছে। জিন থেকে বাঁচার জন্য উপরের দুআটি পড়তে পারেরন তবে প্রথম শব্দে কা বাদ দিয়ে পড়বেন। এছাড়া এই দুআটিও সকাল সন্ধা তিন বার করে পড়তে পারেন: بِسْمِ اللَّهِ الَّذِى لاَ يَضُرُّ مَعَ اسْمِهِ شَىْءٌ فِى الأَرْضِ وَلاَ فِى السَّمَاءِ وَهُوَ السَّمِيعُ الْعَلِيمُ হাদীস শরীফে আছে যে ব্যক্তি সকলে এই দুআ তিনবার পড়বে সন্ধা পর্যন্ত কোন কিছু তাকে ক্ষতি করতে পারবে না আবার সন্ধায় তিনবার পড়বে কোন কিছু সকাল পর্যন্ত তার কোন ক্ষতি করতে পারবে না। সুনানু তিরমীযি, হাদীস নং ৩৩৮৮; সুনানু আবু দাউদ, হাদীস নং ৫০৯০; সুনানু ইবনু মাজাহ, হাদীস নং ৩৮৬৯। ইমাম তিরমিযীসহ সকল মুহাদ্দিস হাদীসটিকে সহীহ বলেছেন। সুতরাং দুআ পড়তে বলুন, লোহা-লক্কড় বাদ দিন। লোহা-লক্কড়ে কোন লাভ হবে না বরং গুনাহ হবে।