As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5726

প্রশ্ন

সৌদি আরব এ বসবাসকারী বা মক্কা, মদিনায় যাদের জন্ম, তাদের কি কবর জীবন থেকেই আজাব শুরু হবে? না শেষ বিচারে যারা পাপী তাদের আজাব হবে? সাধারণ মুসলিমরা যদি কেউ আমল না করে, শুধু পাপই করে তাহলে তো কবর জীবন থেকেই আজাব হয়,

উত্তর

কবরের আজাব সত্য। আলেমগণ এই বিষয়ে একমত। কুরআনে এবং অনেকগুলো হাদীসে কবরের আজাবের বিষয়টি পাওয়া যায়। নিচের হাদীসটি থেকেও কবরের আজাবের বিষযটি জানা যায়। قَالَ ابْنُ عَبَّاسٍ ، رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا مَرَّ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم عَلَى قَبْرَيْنِ فَقَالَ إِنَّهُمَا لَيُعَذَّبَانِ وَمَا يُعَذَّبَانِ مِنْ كَبِيرٍ ، ثُمَّ قَالَ – بَلَى أَمَّا أَحَدُهُمَا فَكَانَ يَسْعَى بِالنَّمِيمَةِ وَأَمَّا أَحَدُهُمَا فَكَانَ لاَ يَسْتَتِرُ مِنْ بَوْلِهِ قَالَ ثُمَّ أَخَذَ عُودًا رَطْبًا فَكَسَرَهُ بِاثْنَتَيْنِ ثُمَّ غَرَزَ كُلَّ وَاحِدٍ مِنْهُمَا عَلَى قَبْرٍ ثُمَّ قَالَ لَعَلَّهُ يُخَفَّفُ عَنْهُمَا مَا لَمْ يَيْبَسَا. অর্থ: ইবনে আব্বাস রা. বলেন, একবার নবী সা. দুটি কবরের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন। তখন তিনি বললেন, তাদেরকে আযাব দেয়া হচ্ছে তবে বড় কোন পাপের জন্য নয়…(সংক্ষিপ্ত)। সহীহ বুখারী হাদীস নং ১৩৭৮। আল্লাহ তায়ালা ফেরাউনের ব্যাপারে বলেছেন, وَحَاقَ بِآلِ فِرْعَوْنَ سُوءُ الْعَذَابِ اَلنَّارُ یُعۡرَضُوۡنَ عَلَیۡهَا غُدُوًّا وَّ عَشِیًّا ۚ وَ یَوۡمَ تَقُوۡمُ السَّاعَۃُ ۟ اَدۡخِلُوۡۤا اٰلَ فِرۡعَوۡنَ اَشَدَّ الۡعَذَابِ ফেরাউন ও তার অনুচরদেরকে শোচনীয় আজাব গ্রাস করে ফেলল। সকাল-সন্ধ্যায় তাদের আগুনের সামনে পেশ করা হয়। আর যেদিন কেয়ামত সঙ্ঘটিত হবে, সেদিন আদেশ করা হবে, ফেরাউন ও তার দলবলকে কঠিনতর আজাবে দাখিল করো। (সূরা আল-মু’মিন : ৪৫-৪৬) মক্কা-মদীনা এবং পৃথিবীর সকল মানুষের জন্য একই বিধান। আল্লাহ যাকে ইচ্ছা কবরে আজাব দিবেন, যদি তিনি চান মাফ করেও দিতে পারেন।