As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5699

প্রশ্ন

হজ্জে জামারাতে পাথর নিক্ষেপের পরে আমরা জানি কুরবানী করতে হয়। অপরদিকে হানাফী মতবাদ অনুযায়ী দমে শোকর আদায় করতে বলে এবং কুরবানী পৃথক ভাবে দিতে বলে। এক্ষেত্রে আমি কি করব?

উত্তর

হজে যে কোরবানি করা হয়ে থাকে, সেটি মূলত কোরবানি না। এটিকে বলা হয়ে থাকে হাদি, অর্থাৎ হাদি জবাই করা হয়ে থাকে। আমাদের একটু পার্থক্য বুঝতে হবে। হজের বিধানের কারণে যেই পশু জবাই করা হয়ে থাকে, তাকে বলা হয় হাদি। হাদিটা মূলত কোরবানি নয়। যাঁরা হজে গিয়েছেন, তাঁরা যদি হজে তামাততু বা হজে কেরান করে থাকেন, তাহলে এই ব্যক্তিদের ওপর হারামের এলাকায় হাদি জবাই করা বাধ্যতামূলক। তিনি হাদি জবাই করবেন। হজে ইফরাদ করলে হাদী জবেহ করার প্রয়োজন নেই। যে হাজী হাদী জবেহ করবেন তিনি যদি সম্পদশালী হন এবং মুসাফির না হন তাহলে হানাফী ও শাফেয়ী মাজহাবে তিনি সাধারণ কুরবানীও দিবেন। সেটা তিনি তার নিজে এলাকাতেও দিতে পারেন। মালেকি মাজহাব অনুযায়ী যে কোন প্রকারের হজ করলে আর কুরবানী দেয়া লাগবে না। হাম্বলী মাজহাবে হাদী জবেহ করলে আর কুরবানী দেয়া লাগবে না। সুতরাং সবচেয়ে উত্তম ও সতর্কতা হলো টাকা পয়সার সমস্যা না হলে হাদী জবেহ এর পাশাপাশি কুরবানীয় করা। আর যদি টাকা পয়সার সমস্যা হয় তাহলে শুধু হাদী জবেহ করলেই হবে। তথ্যসূত্র