As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5636

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম। একজন আমাকে বলেছেন যে, যে ব্যক্তি নবী রাসূলের নাম শুনলো / তাকে নিয়ে আলোচনা হলো কিন্তু দরুদ পাঠ করল না সে জাহান্নামী। এই কথা কোরআন হাদিসের আলোকে কতটা সত্য জানাবেন।

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। নীচের হাদীসদুটি লক্ষ্য করুন: عَنْ أَبِي هُرَيرَةَ رضي الله عنه، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم صلى الله عليه وسلم: «رَغِمَ أَنْفُ رَجُلٍ ذُكِرْتُ عِنْدَهُ فَلَمْ يُصَلِّ عَلَيَّ» আবূ হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এই অভিশাপ দিলেন যে, “সেই ব্যক্তির নাক ধূলা-ধূসরিত হোক, যার কাছে আমার নাম উল্লেখ করা হল, অথচ সে (আমার নাম শুনেও) আমার প্রতি দরূদ পড়ল না। ” সুনানু তিরমিযী, হাদীস নং ৩৫৪৫। হাদীসটি সহীহ। عَنْ عَلِيّ رضي الله عنه قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللهِ صلى الله عليه وسلم صلى الله عليه وسلم : «البَخِيلُ مَنْ ذُكِرْتُ عِنْدَهُ، فَلَمْ يُصَلِّ عَلَيَّ» আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “প্রকৃত কৃপণ সেই ব্যক্তি, যার কাছে আমি উল্লিখিত হলাম (আমার নাম উচ্চারিত হল), অথচ সে আমার প্রতি দরূদ পাঠ করল না। ” সুনানু তিরমিযী, হাদীস নং ৩৫৪৬। এই হাদীসগুলোতে আমরা দেখতে পাচ্ছি নবী সা. এর নাম শোনার পর দরুদ পাঠ না করাকে রাসূলুল্লাহ সা. খুবই অপছন্দ করেছেন। সুতরাং নবী সা. এর নাম শোনার পর অবশ্যই দরুদ পড়তে হবে। তবে নাম শোনার পর দরুদ পাঠ না করলে জাহান্নামে যাবে এমন কথা হাদীসে নেই।