As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5366

প্রশ্ন

জনাব, আসসালামু আলাইকুম। আমার এক আত্নীয়, সম্পর্কে মামা লাগে। সে এবং তার স্ত্রী আলাদা থাকে প্রায় ৩-৪ বছর একটা ভুল বুঝাবুঝির কারনে। তবে তাদের মধ্যে যোগাযোগ ছিল ফোনের মাধ্যমে। তাদের এক ছেলে আছে। ছেলেটা মাঝে মধ্যে বাবার কাছে থাকে মাঝে মধ্যে মায়ের কাছে থাকে। প্রথম ২ বছর ভাল যোগাযোগ ছিল ফোনের মাধ্যমে এবং ছেলেকে আনা নেয়ার মধ্যে দেখা সাক্ষাত হত কিন্তু শারীরীক সম্পর্ক ছিল না। মামী অন্যের মাধ্যমে খোজ খবর রাখত ফোনের মাধ্যমে। ২ বছর পরে মামী রাগ করে ডিভোর্স লেটার পাঠায়। কিন্তু ডিভোর্স লেটারে মামা কখনোই সাইন করেনি এবং মামা তার স্ত্রীকে ডিভোর্স দিবে এই চিন্তাও করে নি। মামীরও এই চিন্তা ছিল না, কিন্তু মামার কিছু সমস্যার কারনে ডিভোর্স লেটার পাঠায় কিন্তু এর বিনিময়ে মামা কোন পদক্ষেপ নেয়নি জেদ করে যে, তার ধারনা বললেই মামী তার কাছে চলে আসবে যেকোন সময়। এভাবে আরো দুই বছর পার হয়ে গেছে। তবে সামনা সামনি মামা তাকে তালাক দেয় নি এবং মামিও তালাক নেয় নি। এখনো তাদের ফোনে কথা হয়। এই অবস্থায় তাদের কি শরিয়ত মতে বা বাংলাদেশের আইন মতে ডিভোর্স/তালাক হয়ে গেছে? এখন যদি তারা আবার একত্রে বসবাস করতে চায় তাহলে শরিয়ত এবং বাংলাদেশ আইন মোতাবেক কি করতে হবে? আমরা চাচ্ছি তারা আবার একত্র হোক কারন ছেলের বয়স মাত্র ৭ বছর এবং তার জীবন নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা যদি এভাবে কিছুদিন মায়ের কাছে আর কিছুদিন বাবার কাছে থাকে। দয়া করে সুন্দর করে বিস্তারিত জানালে উপকৃত হবে। ধন্যবাদ জাহিদ হোসেন মোবাইলঃ ০১৬৮৬১৪৬৭৯০

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। ডিভোর্স লেটারে কী লেখা আছে আর বিবাহের কাবিন নামাতে কী লেখা ছিল সব কিছু দেখে সিদ্ধান্ত দিতে হবে। তাই এই সব কাগজগুলো নিয়ে স্থানীয় কোন অভিজ্ঞ আলেমের সাথে পরামর্শ করুন। তবে এই ধরণের ডিভোর্স লেটারের মাধ্যমে তালাক সাধারণত হয় না।