As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 5247

প্রশ্ন

আমার জিজ্ঞাসা< যাকাতের টাকা দিয়ে কোন ট্রাস্ট প্রতিষ্টা করা যাবে কি? যে মেহনতি অসহায় ক্যান্সার রোগীসহ অস্বচচ্ছল রোগীদের কাজে ব্যবহার করা হবে।

উত্তর

না, যাকাতের টাকা দিয়ে ট্রাস্ট করা যাবে না। কোন জনকল্যানমূলক প্রতিষ্ঠান, মসজিদ,মাদরাসা কোন কিছুউ যাকাতের টাকা দিয়ে করা যাবে না। তবে যাকাতযোগ্য ব্যক্তির প্রয়োজনে যাকাতের টাকা ব্যবহার করা যাবে। যেমন, কোন হাসপাতালের একটি যাকাত ফান্ড রাখা, যে ফান্ড থেকে যাকাত নিতে পারে এমন রোগীদের ওষুধ খরচ বা চিকিৎসা খরচ দেওয়া, তাহলে জায়েজ আছে। যাকাত পাবে ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান নয়। এটাই আলেম, ইমাম, মুহাদ্দিস এবং মুফাসসিরগণের অভিমত। তবে যাকাতের আটটি খাতের একটি খাত وفي سبيب لله দ্বারা পরবর্তী যগের দুয়েক জন আলেম বলেছেন, যে কোন কল্যানকর কাজে যাকাত দেয়া যাবে। তাদের এই কথা সম্পর্কে বিখ্যাত ফকীহ ও মুফতী শায়খ আব্দুল্লাহ বিন বায রহ. বলেন,الصحيح أن المراد بقوله سبحانه: ﴿ وَفِي سَبِيلِ اللَّهِ ﴾ عند أهل العلم هم الغزاة والجهاد في سبيل الله، فلا تصرف في المساجد ولا المدارس عند جمهور أهل العلم. وذهب بعض المتأخرين إلى جواز صرفها في المشاريع الخيرية، ولكنه قول مرجوح؛ لأنه يخالف ما دلت عليه الأدلة، ويخالف ما مضى علمه أهل العلم. مجموع فتاوى ابن باز(14/297) সহীহ কথা হলো وفي سبيب لله দ্বারা আলেমদের নিকট উদ্দেশ্য হলো আল্লাহর রাস্তায় জিহাদকারী। মসজিদ-মাদরাসায় অধিকাংশ আলেমমের নিকট যকাত দেয় জায়েজ হবে না। পরববর্তী যুগের কতিপয় আলেম মনে করেন কল্যানকর যে কোন কাজে যাকাত দেয়া যায়। কিন্তু তাদের কথা অগ্রহনযোগ্য. দুর্বল। কেননা এই কথা (কুরআন ও হাদীসের) দলীল যা বলে তার বিপরীত। এবং আলেমগণ যে পথে চলেছেন তারও বিপরীত পথ। মাজমাউ ফাতাওয়া ইবনে বাজ, ১৪/২৯৭। আশা করি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।