As-Sunnah Trust

প্রশ্নোত্তর

ক্যাটাগরি

প্রশ্নোত্তর 2838

নামায

প্রকাশকাল: 6 Nov 2013

প্রশ্ন

আসসালামুয়ালাকুম। ১) আমাকে একজন বলেছেন যে আসরের পর মাগরিবের আজান পর্যন্ত আর কোন নামাজ নাই এবং এই সময় নামাজ পড়তে নবীজী সাঃ নিষেধ করছেন। কতাটা ঠিক কিনা?
ধরুন, আমি মাগরিবের নামাজ পড়ার উদ্দ্যেশে সুর্য্য ডুবার আগেই মসজিদে গেলাম। এখন ২) মাগরিবের আজানের আগে মসজিদে ২ রাকাত তাইয়াতুল মসজিদ নামাজ পড়া যাবে কিনা?
৩) সূর্য ডুবন্ত অবস্থায় মসজিদে গেলে মাগরিবের আজানের আগে মসজিদে ২ রাকাত তাইয়াতুল মসজিদ নামাজ পড়া যাবে কিনা?
৪) আমাকে একজন বলেছেন যেসুর্য্য উদয় এবং ডুবার সময় সুন্নত বা নফল নামাজ পড়া নিষেধ কিন্তু ফরজ নামাজ পড়া যায়। কথাটা ঠিক কিনা?

উত্তর

ওয়া আলাইকুমুস সালাম। রাসূলুল্লাহ সা. বলেছেন, لاَ صَلاَةَ بَعْدَ الصُّبْحِ حَتَّى تَرْتَفِعَ الشَّمْسُ ، وَلاَ صَلاَةَ بَعْدَ الْعَصْرِ حَتَّى تَغِيبَ الشَّمْسُ ফজরের পর সূর্য উঁচু হওয়া পর্যন্ত এবং আসরের পর সূর্য ডুবে যাওয়া পর্যন্ত কোন নামায নেই। সহীহ বুখারী, হাদীস নং ৫৮৬ উদ্দেশ্যে হলো এই সময়ে কোন সুন্নাত-নফল নামায পড়া যাবে না। তবে ফরজ কাজা নামায পড়া যায়। সূর্য ডুবন্ত অবস্থায় কোন সুন্নাত নামায পড়া যাবে না। মাগরিবের আজানের আগে মসজিদে কোন সুন্নাত নামায পড়বে না।আশা করি আপনার উত্তর পেয়েছেন।